রাজশাহীতে এসআই ইফতেখারের স্ত্রী আটক

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

ষ্টাফ রিপোর্টার, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: রাজশাহীতে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) স্বামীর বিশেষ অঙ্গ কেটে দেওয়ার অভিযোগে তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

আর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়েছে ওই এসআইকে।

ভুক্তভোগী ওই এসআই রাজশাহী নগরীর একটি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ। বৃহস্পতিবার বিকাল চারটার দিকে নগরীর সাগরপাড়া এলাকায় ভাড়া বাসায় তার বিশেষ অঙ্গ কেটে দেওয়া হয়। তিনি ওই সময় ঘুমাচ্ছিলেন।

পরে পুলিশ খাটের নিচ থেকে বিশেষ অঙ্গের বিচ্ছিন্ন অংশ উদ্ধার করে। সেখানেই পাওয়া যায় একটি ধারালো ছুরি।

ঘটনার পরই এসআইয়ের স্ত্রীকে বাড়ি থেকে আটক করা হয়। তিনি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন যে, দাম্পত্য কলহের জের ধরে তিনি তার স্বামীর শরীরে ছুরি চালিয়েছেন। তার দাবি, ওই এসআই অনেক মেয়ের সাথে পরকীয়া প্রেম করতেন।

এদিকে ঘটনার পর ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অস্ত্রোপচার করা হলেও খণ্ডিত অংশ জোড়া দেওয়া সম্ভব হয়নি। তাই রাত ২টার দিকে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) সুবিধাসম্পন্ন একটি এম্বুলেন্সে ঢাকায় নেওয়া হয়।

রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন জানান, ওই এসআইকে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানকার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শরীরের খণ্ডিত অংশের কোষ মারা গেছে। তাই আর জোড়া লাগানো সম্ভব না। এ জন্য আর অস্ত্রোপচারেরও প্রয়োজন নেই। এসআইয়ের শারীরীক অবস্থা এখন স্থিতিশীল।

ওসি আরো জানান, ওই এসআইয়ের স্ত্রীর বিরুদ্ধে থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা হয়েছে। রাতেই এসআইয়ের বাবা বাদী হয়ে বোয়ালিয়া থানায় মামলাটি করেছেন। এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শুক্রবার সকালে আসামিকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী এসআই ২০১০ সালে এ পদেই চাকরিতে ঢোকেন। তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ। আর তার স্ত্রীর বাবার বাড়ি মুন্সিগঞ্জ। এই দম্পতির সাত বছর, চার বছর ও ছয় মাস বয়সী তিনটি মেয়ে সন্তান আছে।


 


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

Discover more from UttorbongoProtidin.Com 24/7 Bengali and English National Newsportal from Bangladesh.

Subscribe to get the latest posts to your email.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *