বাংলাদেশে রুশ যুদ্ধ জাহাজ নিয়ে আতংকিত দক্ষিণ এশিয়া

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

ষ্টাফ রিপোর্টার | উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বন্দরে ভিড়েছে রাশিয়ার যুদ্ধ জাহাজ। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। মিয়ানমার এবং রাশিয়া তাদের প্রথম যৌথ নৌ মহড়া শুরু করার কয়েকদিন পর এন্টি সাবমেরিন যুদ্ধজাহাজ অ্যাডমিরাল ট্রিবুটস ও অ্যাডমিরাল প্যান্টেলিয়েভ এবং রাশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌ বহরের ট্যাঙ্কার পেচেঙ্গা বঙ্গোপসাগরের মূল বন্দরে ভিড়েছে।

 

 

 

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ইউক্রেনে পূর্ণ মাত্রায় আগ্রাসনের সময় থেকে বাংলাদেশ ও রাশিয়া সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলেছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে একমাত্র পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করছে মস্কো। গত অক্টোবরে বাংলাদেশে প্রথম ইউরেনিয়াম চালান সরবরাহ করা হয়েছে।

 

 

 

ঢাকাস্থ রাশিয়ার দূতাবাস (যুদ্ধজাহাজের) এই সফরকে রাশিয়া-বাংলাদেশ সম্পর্কের জন্য এক “বিশাল মাইলফলক” বলে অভিহিত করেছে। জাহাজের ছবি শেয়ার করে এক্সে (আগের টুইটার) করা এক পোস্টে  রাশিয়ার দূতাবাস বলেছে, “৫০ বছর আগে শেষবার রাশিয়ান/সোভিয়েত নৌবাহিনীর জাহাজগুলো বাংলাদেশ সফর করেছিল।”

 

 

 

ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর সরঞ্জাম কেনার জন্য অর্থ সংগ্রহকারী ‘সেরহি প্রিতুলা চ্যারিটি ফাউন্ডেশন‘ এর সাথে যুক্ত “জে ইন কিয়েভ” -এর এক্স অ্যাকাউন্ট থেকে রাশিয়ান জাহাজের এই সফর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে লেখা হয়েছে, “যুক্তরাষ্ট্র যখন অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত, যখন সে রাশিয়ার গুজবের সাগরে হারিয়ে গেছে তখন পুতিন তার বিশ্ব দখল অব্যাহত রেখেছেন। বর্তমানে মিয়ানমারকে নিয়ন্ত্রণকারী সামরিক অভ্যুত্থানকে সমর্থন করার পর, ৫২ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে রাশিয়ান যুদ্ধ জাহাজগুলো ভিড়েছে।

 

 

 

বাংলাদেশে নিযুক্তে উদ্ধৃত করে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছেঃ পাকিস্তানের কাছ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জনের পর ১৯৭২ সালের এপ্রিল থেকে ১৯৭৪ সালের জুনের মধ্যে সোভিয়েত নৌবাহিনীর নাবিকরা বাংলাদেশকে “মানবিক বিপর্যয়” থেকে বাঁচাতে সাহায্য করার জন্য মাইন ক্লিয়ারিং অপারেশনে কাজ করেছিল। রুশ রাষ্ট্রদূত বলেন, “স্বাধীনতা যুদ্ধের পর বন্দরের পানিতে মাইন পোঁতা হয়েছিল। অনেক জাহাজও ডুবে গিয়েছিল।”

 

সেনাশাসিত মিয়ানমার আন্দামান সাগরে রাশিয়ার সাথে যৌথ মহড়ায় অংশ নেওয়ার কয়েকদিন পর রাশিয়ান জাহাজের বাংলাদেশ সফরের খবরটি সামনে এলো। নৌবাহিনীর জাহাজ এবং বিমান ওই মহড়ায় অংশ নিয়েছিল বলে জানা গেছে। এই মুহূর্তে বাংলাদেশে অবস্থান করা রাশিয়ার এন্টি সাবমেরিন যুদ্ধজাহাজ অ্যাডমিরাল ট্রিবুটস এবং অ্যাডমিরাল প্যান্টেলিয়েভও ওই মহড়ায় অংশ নিয়েছিল।


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

Discover more from UttorbongoProtidin.Com 24/7 Bengali and English National Newsportal from Bangladesh.

Subscribe to get the latest posts to your email.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *