রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের পৃথক পৃথক অভিযানে আটক ২১ ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থী উদ্ধার

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অভিযানে মোট ২১ জনকে আটক করা হয়েছে। রাজশাহী মহানগরীর থানা ও ডিবি পুলিশ রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানা-৫ জন, রাজপাড়া থানা-২ জন, মতিহার থানা-৬ জন, কাটাখালী থানা-২ জন, শাহমখদুম থানা-৪ জন, দামকুড়া থানা-১ জন ও ডিবি পুলিশ-১ জনকে আটক করে। যার মধ্যে ৬ জন ওয়ারেন্টভূক্ত আসামি, ৬ জনকে মাদকদ্রব্যসহ ও অন্যান্য অপরাধে ৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

 

 

মাদক মামলায় অভিযুক্ত আসামিদের হেফাজত হতে ৮২.১০ গ্রাম হেরোইন, ৪০ পিস ইয়াবা ও ৬৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

 

অন্যদিকে আরএমপি’র মতিহার থানা পুলিশের প্রচেষ্টায় হারিয়ে যাওয়া ৯ বছর বয়সী মাদ্রাসা শিক্ষার্থী মাহিনকে উদ্ধার করে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে। শিশুটি বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানার লাউহাটি গ্রামে। ঘটনা সূত্রে জানা যায়, শিশু মাহিনের বাবা সৌদি প্রবাসী। চার মাস পূর্বে তার মা মাহিনকে শাহমখদুম থানাধীন নওদাপাড়ায় একটি মাদ্রাসায় ভর্তি করেন।  সেখানে আবাসিক থেকে সে পড়াশোনা করতো। মাহিনের আবাসিকের নির্দিষ্ট নিয়ম কানুন ভাল লাগতো না। তাছাড়াও তার বাড়িতে দুই বছর বয়সী ছোট বোনের প্রতি মায়ায় মন ব্যাকুল থাকতো। তাই পড়াশোনায় তার মনোযোগ বসতো না। 

 

এসব কারণে মাহিন প্রায়ই বাড়ি যাওয়ার জন্য ব্যাকুল থাকতো। বিষয়টি মাদ্রাসা শিক্ষক এবং পরিবারের লোকজন জানলেও তারা মাহিনকে বুঝিয়ে মাদ্রাসায় থাকতে বলে। কিন্তু মাহিন কিছুতেই মাদ্রাসায় থাকবে না। তাই আজ সকালে সে মাদ্রাসার কাউকে না জানিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। বাড়ির পথ না জানায় মাহিন ঘুরতে ঘুরতে একপর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয় রেল স্টেশনে চলে আসে এবং বাড়িতে না যেতে পেরে কান্না শুরু করে । বিষয়টি মতিহার থানা পুলিশ খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে থানা নিয়ে আসে।

 

রাজশাহী মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মো: মোবারক পারভেজ মাহিনের সাথে বন্ধুসুলভ আচরণ করে কান্নাকাটির কারণ ও ঠিকানা জানতে চান। মাহিন তার কান্নাকাটির কারণ ও ঠিকানা জানায়। মাহিনের পরিচয় জানার পর অফিসার ইনচার্জ তাৎক্ষণিক তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরবর্তীতে সংবাদ পেয়ে ২০শে মার্চ ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সন্ধ্যায় শিশু মাহিনের মা মতিহার থানায় আসলে অফিসার ইনচার্জের উপস্থিতিতে উদ্ধারকৃত শিশুকে তার মায়ের হাতে তুলে দেন। মাহিনের মা মাহিনকে ফিরে পেয়ে অত্যন্ত আনন্দিত।

 


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

Discover more from UttorbongoProtidin.Com 24/7 Bengali and English National Newsportal from Bangladesh.

Subscribe to get the latest posts to your email.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *