durga_in_islamic_textbook
ইসলাম শিক্ষা বইয়ে দুর্গার ছবি

ইসলাম শিক্ষা বইয়ে দুর্গার ছবি

Rajshahi_Pet_Care
উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক || উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন :: জানুয়ারি উৎসবের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে নতুন বই। তবে তৃতীয় শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইয়ে ঘটেছে কলঙ্কজনক ঘটনা। মুসলমান শিক্ষার্থীদের জন্য ছাপানো বেশকিছু বইয়ে পাওয়া গেছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দেবী দূর্গার ছবি। 

 

 

 

সাতক্ষীরার ২টি উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও ঠাকুরগাঁওয়ের কয়েকটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এসব বই পাওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন অভিভাবকরা। ঘটনা আচ করতে পেরে একদিন পরই শিক্ষকদের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বইগুলো ফিরিয়ে নিয়েছে সংশ্লিষ্ট উপজেলার শিক্ষা কর্মকর্তারা। তবে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি)র চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. ফরহাদুল ইসলাম জানিয়েছেন, এটি ছাপাখানার ভুল। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করার কথা জানিয়েছেন তিনি। 

 

জানা যায়, গত ১ জানুয়ারি বই উৎসবের মাধ্যমে সারাদেশে শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হয় নতুন বই। নতুন বই পেয়ে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা ফিরে যায় বাড়িতে। এর মধ্যে সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ঠাকুরগাঁও জেলার কয়েকটি বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীর হাতে যে ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বই তুলে দেয়া হয়, সেগুলোর পেছনের মলাটের ভেতরের পৃষ্ঠায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দেবী দূর্গার ছবি ছাপানো হয়েছে। বিষয়টি চোখে পড়ার পর দ্রুতই অভিভাবক ও সচেতন ব্যক্তিরা সমালোচনা মুখর হয়ে উঠেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বইটির ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করেন অনেকে। এটিকে কেউ কেউ ইচ্ছাকৃত, আবার অনেকে অনিচ্ছাকৃত ভুল বলে দাবি করেন। বিষয়টি জানার পর সাতক্ষীরা ও ঠাকুরগাঁওয়ের সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইটি ফেরত নেয় শিক্ষকরা। যারা স্কুলে আসেননি তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়েও ফেরত আনা হয় এসব বই।

 

অন্যদিকে ঠাকুরগাঁওয়ের সাইদুর রহমান নামে একজন অভিভাবক ভুলে ছাপা বইটির ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে শেয়ার করে দ্রুত সংশোধনী দিতে অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তৃতীয় শ্রেণির বইটিতে এমন ভুল দেখে খোঁজ নিলাম। দেখলাম আমাদের আশপাশের দুটি স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা বইয়ে একই ভুল। অন্য এলাকার খবর আমি জানি না।

 

 

ইসলাম শিক্ষা বইয়ে দূর্গার ছবির বিষয়ে এনসিটিবি চেয়ারম্যান প্রফেসর মো. ফরহাদুল ইসলাম বলেন, এটা ছাপাখানার ভুল। ভুলটা হলো- ইসলাম শিক্ষা বইয়ের উল্টো পাশে হিন্দু ধর্ম শিক্ষা বইয়ের ইংরেজি ভার্সনের মলাট রয়ে গেছে। এটা জানার পরপরই আমরা বই তুলে নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছি। শুনেছি ৪০টি বইয়ে এমন ভুল হয়েছে। সাতক্ষীরার একটি স্কুলে এমন ভুল ছাপা বই পাওয়া গেছে। নতুন করে বই ছাপিয়ে দ্রুত শিক্ষার্থীদের বইটি দেওয়া হবে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

এদিকে এনসিটিবির বিতরণ শাখার এক কর্মকর্তা জানান, এখন ওয়েব মেশিনে বই ছাপা হয়। যদি ভুল হয়ে থাকে, তাহলে কয়েক হাজার বইয়ে একই রকম ভুল হওয়ার কথা। কিন্তু অল্প কিছু বইয়ে এ ধরনের ভুল হওয়ায় সন্দেহ বাড়ছে। এটা প্রেসের ভুল নাকি অন্য কোনো কিছু আছে, সেটা তদন্ত করা প্রয়োজন।


উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

Discover more from UttorbongoProtidin.Com 24/7 Bengali and English National Newsportal from Bangladesh.

Subscribe to get the latest posts to your email.

Leave a Comment

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *