‘বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি’ করায় মেয়র আব্বাসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাতে এই মামলার এজাহার দেওয়া হয়।

পরে পুলিশ সদর দপ্তরের অনুমোদন সাপক্ষে আজকের তারিখে (২৪ নভেম্বর) মামলাটি গ্রহণ করা হয়।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস বুধবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ঘটনাসূত্রে জানা যা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল বসানো নিয়ে কটূক্তি করেছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌর মেয়র আব্বাস আলী। তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। এ ছাড়া তিনি পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও জেলা কমিটির সদস্য।

তিনি একটি অডিওতে বলেছেন, ‘সিটি গেট আমার অংশে। একটি ফার্মকে দিয়েছে তারা বিদেশি স্টাইলে সাজিয়ে দিবে; ফুটপাথ, সাইকেল লেন টোটাল আমার অংশটা। কিন্তু একটু ঠেকে গেছি গেটটা নিয়ে।

একটু চেঞ্জ করতে হচ্ছে, যে মুর‌্যালটা দিয়েছে বঙ্গবন্ধুর সেটা ইসলামী শরীয়ত মতে সঠিক নয়। এ জন্য আমি ওটা থুব না, সব করবো তবে শেষ মাথাতে যেটা ওটা (মুর‌্যাল)।’

তিনি বলেন, ‘ইসলামের দৃষ্টিতে পাপ, সেজন্য রাজশাহী সিটি গেটে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল বসাতে দিবো না। দরকার হলে জীবন দিয়ে প্রতিহত করবো’।

আব্বাস আলীর এক মিনিট ৫১ সেকেন্ডের বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। তার এমন বক্তব্যে রাজশাহীজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। যদিও পুরো ঘটনাটি অস্বীকার করেছেন মেয়র আব্বাস।

মেয়র আব্বাস আলী অডিওতে বলেছেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি আমাকে যেভাবে বুঝাইছে, যে মুর‌্যালটা ঠিক হবে না দিলে; আমার পাপ হবে; তো কেন দিবো।

আমি তো কানা না, যেভাবে বুঝাইছে তাতে আমার মনে হয়েছে মুর‌্যালটা হলে আমার ভুল করা হবে। এ খবরটা যদি যায় তাহলে আমার রাজনীতির বারোটা বাজবে; এই মুর‌্যাল দিতে চেয়ে দিছে না। তাহলে বঙ্গবন্ধুকে খুশি করতে গিয়ে আল্লাহকে নারাজ করবো নাকি। এজন্য কিছু করার নাই।

এ বিষয়ে সার্বিক তথ্য জানার জন্য রাজশাহী কাটাখালী পৌর মেয়র আব্বাস আলীর ০১৭১১৩৫৩০৯০, ০১৮২২৮৪৩০৩০ মোবাইল

নাম্বারে ফোন দিলে তিনি বলেন – আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি করার মতো সাহস কখনো ছিল না।’ অডিওতে যে ভয়েস শোনা যাচ্ছে তা আপনার সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে এমন কথা বলা হলে তিনি ফোন কেটে দেন। এরপর থেকে আর কল রিসিভ করেন না।

উক্ত বিষয়ে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার বলেন, পৌর মেয়র আব্বাসের বক্তব্য লোকমুখে শুনেছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তি করা খুব অন্যায়। আমরা এর তদন্ত করবো। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যদি কোনো কটূক্তি করে থাকে তার বিরুদ্ধে দলীয় ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অন্যদিকে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে কটুক্তি ও বিতর্কিত বক্তব্য দেয়ায় পৌরসভা আওয়ামী লীগের আহবায়কের পদ থেকে কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে বহিস্কার করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরী বৈঠকে আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আবহায়কের পদ থেকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত হয়।

পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাজদার রহমান সরকার বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলীর সভাপতিত্বে জরুরী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।


News Source : wiki  BSS BBC  Ref: Uttorbongo Protidin 

উত্তরবঙ্গ প্রতিদিনের সংবাদটি শেয়ার করুন

Discover more from UttorbongoProtidin.Com 24/7 Bengali and English National Newsportal from Bangladesh.

Subscribe to get the latest posts to your email.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *